Saturday, June 15সময়ের নির্ভীক কন্ঠ
Shadow

পুলিশের গতিশীল কাজকে পিছিয়ে দিচ্ছে পুরনো গাড়ি

হাসানুজ্জামান সুমন, বিশেষ প্রতিনিধি: পুলিশ সদর দফতর থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে, পুলিশি অভিযানে ব্যবহারের যানবাহন আছে।
সব মিলিয়ে পুলিশের গাড়ি আছে ১১ হাজার ৯২৩টি। এর মধ্যে মোটর সাইকেল ৬ হাজার ৪৪৫টি। বাকি ৫ হাজার ৪৭৮টি যানবাহন দিয়ে সারা দেশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছে পুলিশ।
পুলিশের হিসাবে ৪ হাজার ৫২৯টি যানবাহনের ঘাটতি আছে তাদের। যেসব গাড়ি আছে, সেগুলোর অনেকগুলো দ্রুত গতিতে চলতেই পারে না।
ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) এক হাজার ৪১২টি গাড়ির মধ্যে মোটরসাইকেল ৯৫২, পিকআপ ভ্যান ২৬০, জিপ ৯২, প্যাট্রল জিপ ২১, মাইক্রোবাস ২৬, বাস ১৬, রায়ট কার আট, অ্যাম্বুলেন্স পাঁচ ও প্রিজন ভ্যান ২২টি। বেশির ভাগ পিকআপ ভ্যান, জিপ, প্যাট্রল জিপ, মাইক্রোবাসের কোনোটির হেডলাইট জ্বলে না, কোনোটির সামনের অংশ চ্যাপ্টা হয়ে গেছে, কোনোটি রংচটা, কোনোটির ব্রেক নেই। দেশের চার শতাধিক থানার গাড়ির অর্ধেক অচল হয়ে থাকায় পুলিশ অভিযানে বের হতে গিয়ে ভাড়া করছে বেসরকারি বাস, পিকআপ ভ্যানসহ বিভিন্ন ধরনের গাড়ি। তবে এর বেশির ভাগ চলাচলের অনুপযোগী।
পথে পুলিশের টহল গাড়ির পাশ দিয়ে দ্রুতগতিতে চলে যায় একটি মোটর সাইকেল। আরোহী ছিল তিন জন।
ইচ্ছা থাকলেও বাইক আরোহীদের পরিচয় জানতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
সেই এসআই বললেন, “তাদেরকে তো ধরা যাবে না। কারণ আমাদের গাড়ির গতি বাড়ালেই ইঞ্জিনে তেল উঠে বন্ধ হয়ে যাবে।”
সন্দেহভাজনদের তাড়া করতে না পারলে কীসের ডিউটি দিচ্ছেন- এই প্রশ্নে তিনি বলেন, “কী বলব? রাজধানীর ৫০টি থানার টহল গাড়িগুলোর অবস্থাও ‘লক্কড়ঝক্কড়’ বলে আক্ষেপ করলেন ওই এসআই।
ঢাকার একটি থানার ওসি নিজের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে বলেন,অপরাধীকে ধরতে যাওয়ার মত ভালো গাড়ি তো নেই। ভিআইপি ডিউটি দিতে গেলেও বিব্রত হতে হয়।
সংকটের কারণে পুলিশের অনেক কর্মকর্তাকে অনেক সময় গাড়ি ভাড়া করে বিভিন্ন স্থানে অভিযানে যেতে হয়। এছাড়া নিজ থানা এলাকায় অপরাধ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সার্বক্ষণিক টহল দেওয়ার জন্য গাড়ি রিকুইজিশন করতে হয়। রিকুইজিশন করা ফিটনেসবিহীন লেগুনায় পুলিশের টহলদৃশ্য খুবই পরিচিত।
এ বিষয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিন) এ কে এম হাফিজ আক্তার বিপিএম-বার; জানান,অনেক আগে থেকেই হচ্ছে রিকুইজিশন করা গাড়ি ব্যবহার করছে পুলিশ। গাড়ি সংকটের কারণেই এমনটি হয়। তিনি আরো বলেন, সরকার পুলিশের জন্য বেশ কিছু আধুনিক মানের গাড়ি কিনেছে। পুলিশের ব্যবহার করা লক্কড়-ঝক্কড় গাড়ির সংখ্যাও অনেক কমে আসছে। আরো কিছু গাড়ি কেনারও পরিকল্পনা রয়েছে পুলিশের। আশা করছি,শিগগিরই পুলিশের পরিবহন সংকট কিছুটা দূর হবে।

শেয়ার বাটন