Sunday, July 14সময়ের নির্ভীক কন্ঠ
Shadow

কুমিল্লায় সাংবাদিকসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা: বিএমএসএফ’র প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুমিল্লায় একটি পত্রিকার সম্পাদক সহ ৩ জন সাংবাদিক ও একজন আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে কুমিল্লার একটি আদালতে ৬ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের করা হয়। এতে কুমিল্লা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আমাদের কুমিল্লার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহাজাদা এমরান, পত্রিকাটির চান্দিনা প্রতিনিধি মাসুমুর রহমান মাসুদ এবং চান্দিনার মহিচাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আবু মুছা মুছা মজুমদারকে আসামী করা হয়।

মামলা দায়েরের ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। এক বিবৃতিতে সংগঠনের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আহমেদ আবু জাফর মামলাটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করেছেন।

বুধবার (৭ জুন) কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৭নং আমলী আদালতে ওই মামলাটি দায়ের করেন চান্দিনার সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত এমপি’র অনুসারী চান্দিনা পৌর কৃষকলীগ সভাপতি জয়নাল আবেদীন জনি। মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই কুমিল্লা কে নির্দেশ দেন আদালত।

এর আগে গত ৩ জুন (শনিবার) চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগ এর কর্মী সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং মহিচাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আবু মুছা মজুমদারসহ নেতাকর্মীরা স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তের বিরুদ্ধে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা তুলে ধরে সংবাদ পরিবেশন করে দৈনিক আমাদের কুমিল্লা সহ বেশ কয়েকটি জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকা। ওই সংবাদের প্রেক্ষিতেই মামলাটি দায়ের করেন অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত এমপি’র অনুসারী ওই কৃষকলীগ নেতা।

মামলার এজাহারে জানা যায়, গত ০৪ জুন (রবিবার) এর দৈনিক আমাদের কুমিল্লায় ‘এমপি প্রাণ গোপালের বিরুদ্ধে ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিরোধীতা ও টাকা নেওয়ার অভিযোগ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে এমপি’র ৫ কোটি টাকা এবং বাদীর ১ কোটি টাকা মান হানি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৩ জুন (শনিবার) চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগ এর কর্মী সমাবেশে মহিচাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আবু মুছা মুছা মজুমদার স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তের বিরুদ্ধে ইউপি নির্বাচনে নৌকা বিরোধী অবস্থান এবং প্রশাসনের নাম দিয়ে এমপি’র এপিএস সমীর এর মাধ্যমে ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা নেওয়ার অভিযোগ তুলেন। এছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সহ অন্য নেতাকর্মীরাও এমপি’র বিরুদ্ধে ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিরোধীতা করার অভিযোগ তুলেন। মামলাটির সুষ্ঠু ও নিরপক্ষ তদন্ত করা না হলে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তোলা হবে।

শেয়ার বাটন